ড্রাগন ফ্রুট সফল পরিচর্যা

Updated: Nov 2, 2020

ড্রাগন ফ্রুটের সাথে আমরা সবাই কম বেশি পরিচিত। এটি দক্ষিণ মেক্সিকো এবং মধ্য আমেরিকার স্থানীয ফল। এই ফলটি হোনোলুলু কুইন নামেও পরিচিত যার ফুল কেবল রাতে ফোটে। এই ফলটি আজকাল আমাদের দেশের মানুষের কাছে খুব জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। ফলটি বেশিরভাগ নার্সারিতে পাওয়া যাচ্ছে। গাছের দাম ১০০- ৫০০ এর মধ্যে পাওয়া যায় ।

ড্রাগন ফ্রুট সর্বাধিক বহুল পরিমানে উপলভ্য জাতটি প্রধানত বাহিরের দিকে লাল ত্বক এবং ভিতরে কালো বীজের সাথে সাদা সজ্জা রয়েছে।

আরেকটি জাত - যাকে হলুদ ড্রাগন ফল হিসাবে উল্লেখ করা হয় - এর মধ্যে হলুদ ত্বক এবং কালো বীজের সাথে সাদা সজ্জা রয়েছে।

ড্রাগন ফল থেকে কিভাবে ফল পাওয়া যাবে তা নিয়ে আজকের আমাদের এই প্রতিবেদন।


বীজ বা কাটিংয়ের মধ্যে চারা সংগ্রহ:

ড্রাগন ফল বীজ বা কাটিংয়ের মধ্যে সংগ্রহ করা যায় । আপনি যদি বীজের গাছ লাগান, তবে আপনার গাছে ফল ধরতে দুই বছর বা তার বেশি লাগতে পারে। আপনি যদি স্টেমের কাটিং পদ্ধতি ব্যবহার করেন, তবে এতে অনেক কম সময় লাগতে পারে (আপনার কাটিং কতটা বড় তার উপর নির্ভর করে)।

বীজ থেকে ড্রাগন ফল করা খুব কঠিন কিছু না কিন্তু ফল ধরতে সময় বেশি নেয়।

ড্রাগন ফলগুলি আপনি টিনের পাত্রে অথবা মাটিতে লাগাতে পারেন । আপনি যে পাত্রটি ব্যবহার করবেন তা যেনো "১৫ থেকে ২৫" ব্যাসের পাত্র হয় এবং কমপক্ষে ১০ "+ গভীর হয়।


  • মাথায় রাখতে হবে যে ড্রাগন ফ্রুট একটি ক্যাকটাস।ড্রাগন ফ্রুট এমন জায়গায় লাগাতে হবে, যেখানে পানি জমে না। ভেজা মাটি ড্রাগন ফ্রুটের শত্রু। আপনার অঞ্চলে যদি প্রচুর বৃষ্টিপাত হয়, তবে খেয়াল রাখবেন ড্রাগন ফলের গাছের গোড়ায় যেন পানি না জমে।

  • যদি আপনি গাছটি কোন পাত্রে রোপণ করেন তবে পাত্রের নীচে ফুটো করে দেন যেন পানি না জমে। বালি, মাটি এবং কম্পোস্টের মিশ্রণ ব্যবহার করে মাটি তৈরি করুন।স্টেম কাঁটা থেকে কয়েক ইঞ্চি ( ৭ সেমি) দূরে এটি রোপন করুন।

  • ড্রাগন ফ্রুট পুরোপুরি সূর্যের নিচে রাখুন। দিনে যেন কয়েক ঘণ্টা আলো পায়।

  • ড্রাগন ফ্রুট লাগানোর পর চারা চার মাস সময় লাগবে মোটা তাজা দেখতে। তবে, সারের ক্ষেত্রে সাবধানতা অবলম্বন করুন।অতিরিক্ত সার আপনার গাছটি খুব সহজেই মেরে ফেলতে পারে। সেরা ফলাফলের জন্য, কম নাইট্রোজেনযুক্ত সার প্রতি দু'মাসে একবার দিন । ড্রাগন ফ্রুট মাটি শুষ্ক হলে সামান্য পানি দিন। যদি আপনার গাছটি খুব বেশি বড় হয়, তবে পানি একটু বেশি দিতে পারেন। পানি বেশি দেবার কারনে এই গাছ মারা যাওয়ার সবচেয়ে সাধারণ কারন । আপনি যদি কোনো পাত্রে গাছ লাগান , খেয়াল রাখবেন যেনো পানি কেবল নীচে জমে না থাকে। এতে গাছ পচে যাবে এবং ক্ষয় হতে পারে

আপনার গাছটি পুরোপুরি আকার ধারন করতে কয়েক বছর সময় নিতে পারে।গাছের স্টেম যদি খুব বড়ো হয়ে যায়, তবে লাঠির কাঠামো ব্যবহার করতে পারেন, যেন গাছটি সোজা থাকে । গাছের স্টেম যেন ভেঙে না যায় , সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। উপরের ছবি দেখুন কিভাবে কাঠামো তৈরি করা হয়েছে।


এই ফলের ফুল কেবল রাতে ফোটে (হ্যাঁ, এটি নিশাচর) . অনেক ড্রাগন ফ্রুট স্ব-পরাগায়ণ হয়, এক্ষেত্রে আপনার তেমন কিছু করার দরকার নাই। যদি স্ব-পরাগায়ণ না হয় তবে আপনি নিজে গাছের পরাগায়নের চেষ্টা করতে পারেন।হাতের পরাগায়নের ক্ষেত্রে, ফুলের ভিতরে যেই পেস্টেল থাকে, তা খুব অল্প করে কেচি দিয়ে কেটে একটা বাটিতে মিশ্রণ করে, তা আবার ড্রাগন ফ্রুট এর ফুলের ভিতর ঢেলে দিন। বোঝার জন্য উপরের ছবিটি খেয়াল করুন। পরাগায়ন ঠিকমতো হলে, প্রচুর ফল ধরবে।

ড্রাগন ফল সাধারণত গ্রীষ্মের শেষের দিকে বা শরতে হয়। তবে পর্যাপ্ত পরিমাণে জল এবং উষ্ণতা পেলে বছরের প্রায় যেকোন সময় ফল ধরতে পারে। ড্রাগন ফল ধরার পর, তা উপভোগ করুন।



আমাদের আর্টিকেল ভালো লাগলে, দোয়া করে শেয়ার দিন এবং আমাদের পেজ এ লাইক দিন যেন প্রতিনিয়ত আর্টিকেল দেখতে পারেন।


https://www.facebook.com/5minssolution/











685 views0 comments

5-MinsSolution

Contact us

Tel: +8801713221592

Dhaka, Bangladesh

  • Facebook

Follow us on Facebook