নয়টি উপায়ে আপনার টাকা ম্যানেজ করুন

Updated: Nov 19, 2020


মানুষের জীবনে দুশ্চিন্তার শেষ নেই। আমাদের দুশ্চিন্তার শতকরা ৭০ ভাগ হচ্ছে অর্থনৈতিক। আমেরিকার প্রকাশিত একটা ম্যাগাজিনে বলা হয়েছে যে, মানুষ মনে করে তাদের কাছে কিছু টাকা এলেই, তাদের অনেক সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। এমনকি অনেকে ভাবেন কেবল দশভাগ বেতন বাড়লে তাদের অনেক সমস্যার সমাধান হবে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে অনেক সমস্যার সমাধান হয় ঠিকই। কিন্তু বেশিরভাগ ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে , মানুষের হাতে যেহারে টাকা পয়সা আসে ঠিক একই অনুপাতে তাদের খরচ ও বেড়ে যায়। এরকম হয় কেন? এর কারণ বেশিরভাগ মানুষ জানে না কিভাবে তাদের টাকা খরচ করতে হবে।

আপনি হয়তো এখন চিন্তা করতে পারেন যে, লেখকের তো আমার পারিবারিক খরচের টাকা মেটাতে হয় না, আমার দায়িত্ব তো তাকে বহন করতে হয় না, আমার সীমিত বেতনের মধ্যে সবকিছু ম্যানেজ করতে হয় না। যদি হতো তাহলে এমন কথা কখনোই বলতে পারতো না।


আপনার হাতে যখন টাকা আসবে, তখন কিছুটা পরিকল্পনা করে, সেই টাকা ব্যয় করতে পারেন। আজকের এই প্রতিবেদনে এমন কিছু নিয়ম এর কথা বলা হয়েছে।



  • আপনি আপনার সব ধরনের হিসাব একটা কাগজে লিখুন এবং প্রতিনিয়ত আপনার খরচের হিসাব এবং কোথায় বেশি হচ্ছে তার হিসাব করুন। অযথা খরচ হলে তা বন্ধ করার চেষ্টা করুন এবং গত মাসে থেকে চলতি মাসে কোথায় খরচ বেশি বা কম হয়েছে তার হিসাব বের করুন।


  • প্রয়োজন মনে রেখে পরিকল্পনা ও খরচের হিসাব তৈরি করে ফেলুন। দুটো পরিবারের আয় একই হতে পারে কিন্তু ভিন্ন ধরনের মানুষ থাকার কারণে খরচ ভিন্ন হতে পারে তাই সর্বদা খেয়াল রাখবেন আপনার খরচ কোথায় হচ্ছে।


  • আয় নিয়ে বেশি মাথা না ঘামিয়ে বরং ব্যয় নিয়ে মাথা ঘামানোর চেষ্টা করুন


  • সন্তানদের টাকা পয়সার প্রতি দায়িত্বশীল করে তুলুন



  • কোন ভাবেই টাকা পয়সা জুয়াতে খরচ করা যাবে না। অনেক জায়গায় দেখা গেছে, মানুষ আশ্চর্যজনকভাবে জুয়া খেলে বড়লোক হতে চায় এবং বেশিরভাগ মানুষ সব হারিয়ে ফেলে। তাই জুয়া খেলার আগে ভালো করে ভেবে দেখুন ভাগ্য আপনার কতটা অসহায় করে তুলতে পারে।


  • অসুস্থতা, অগ্নিকাণ্ড এবং অনন্যা জরুরী খরচের জন্য টাকা আলাদা করে রাখুন।


  • যতটা পারবেন কারো কাছ থেকে টাকা পয়সা ধার করা থেকে বিরত থাকবেন। মনে রাখবেন ধার করা মানে অবশ্যই তা সুদ সহ ফেরত দিতে হবে।



  • যদি বেশি দামি কিছু কিনতে চান, তবে ৩০ দিন পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। যদি দেখেন যে ৩০ দিন পরেও আপনার সেই জিনিসের প্রয়োজন রয়েছে, তবে তা ক্রয় করুন অন্যথায় তা ক্রয় থেকে বিরত থাকুন।


  • একটা জিনিস মনে রাখবেন, সস্তার তিন অবস্থা। তাই কোন কিছু ক্রয় করার আগে কমদামি হলেই যে কিনতে হবে তার উপর নজর না রেখে কোয়ালিটির উপর খেয়াল করুন। আপনি কোয়ালিটি সম্পূর্ণ কোন জিনিস ক্রয় করলে তা দীর্ঘস্থায়ী হবে এবং মেইনটেন্যান্সে টাকা কম খরচ হবে।



290 views0 comments